"রান্নাবান্নার কাজটা আমার কাছে একটা আর্টের মত লাগে ... এইখানে সব আছে ... ব্রেইন, স্কিল, এক্সপেরিয়েন্স আর ট্যালেন্ট !!  

 

হাতের আন্দাজে লবণ ছিঁটায় দেয় আম্মু, রোজার জন্য টেস্ট করারও সুযোগ নাই ... পারফেক্ট লবণ হয় কিভাবে কিভাবে জানি ... সাকিব আল হাসানের কবজির মোচড়ে খেলা শটের চেয়ে কম কিছু না এইটা ... ট্রাস্ট মি !! 

 

রান্নার কাজটা অনেক আন্ডাররেটেড ... আম্মুকে মুগ্ধ হয়ে দেখি ... ডিপ ফ্রিজে সমস্ত মাছ-মাংসের পোটলা কিভাবে সাজানো ... আমি একটা নামিয়ে আরেকটা রাখতে গেলেই দেখি আর জায়গা হচ্ছে না ... এই লেআউট ডিজাইন করা আর এই অ্যারেঞ্জমেন্ট করে সব ফিক্স করা - এইটা আমার পড়া কোন ইঞ্জিনিয়ারিং এর থেকে কম না ... আম্মু পারফেক্ট ইঞ্জিনিয়ার ইন হোম মেকানিক্স !!  

 

সেহরি বা ইফতারের পরে সবাই লম্বা হয়ে বিছানায় শুয়ে পড়ে যখন, রান্নাঘরে থালা বাসন ধোয়ার আওয়াজ শোনা যায় ... মাঝে মাঝে সাহায্য করি ... মাঝে মাঝে আম্মু ভাগায় দিয়ে বলে, "যা তুই! খামোখা পানি ফেলবি এখানে" 

 

আমি জানি, এটা একটা অজুহাত ... আমাকে কাজ করতে দিবে না, সেজন্য !! 

 

একজন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, খেলোয়াড় কিংবা আর্টিস্টের কাজের মতই রান্নাবান্নাতে অনেক বেশি স্কিল লাগে, প্যাশন লাগে, ধৈর্য্য লাগে ... এই স্কিলটাকে মানুষ কেন ওভারলুক করে, আমি জানি না !! 

 

শুধু জানি, পুরোটা জীবন যারা এই রান্নাবান্নার আর্টটা পারফেক্ট ওয়েতে করে আসতেছেন, তাদের এই আর্টটাকে আমরা অনেক কম প্রশংসা করি ... কেন যেন এই পুরো ব্যাপারটাকে Taken For Granted হিসেবে নিয়ে নিই আমরা !! 

 

একটা ম্যাজিক শিখাই ... কালকে খাবারটা খেয়ে একটু হাসিমুখে বলেন, খাবার অনেক মজা হইসে ... তারপর মানুষটার মুখের দিকে তাকান ... দেখবেন মানুষটার কপালে ঘাম চিকচিক করছে আর চোখের ভেতরটা আনন্দে জ্বলজ্বল করছে, আর মুখে এক টুকরো সফলতার হাসি ... এই হাসিটা ঐ মানুষটা ডিজার্ভ করে ... অবশ্যই অবশ্যই ডিজার্ভ করে !!

 

পৃথিবীর সব বাসায় ব্যস্ত থাকা রান্নাবান্নার আর্টিস্টদের জন্য মন থেকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা ♥